echo '' ;

The World Cheapest And Smallest Computer|রাসবেরী পাই

  1.  

পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট কম্পিউটার কতটুকু সাইজের হতে পারে তা কি আপনি ভাবতে পারেন!!হয়তো আপনি ছোটখাটো একটা ট্যাবের আকারের একটা কম্পিউটার ভেবে থাকতে পারেন।কিন্তু আপনাকে অবাক করে দিয়ে আমি যদি বলি পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট কম্পিউটারটি একটা ক্রেডিট কার্ডের সাইজ।

অবাক হচ্ছেন!!ভাবছেন কেমনে সম্ভব বা এতেই আছেই বা কি!!জ্বি আমি যেমনটা বলেছি এটা পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট কম্পিউটার অর্থাৎ এটিও আপনাকে বিশাল একটা বড় ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে যা করার সুবিধা প্রদান করবে এটিও কিন্তু আপনাকে সে সুবিধাগুলোই প্রদান করবে।আপনি হয়তো কোডিং করার জন্য একটা কম্পিউটার কিনলেন ২০-২৫ হাজার টাকা দিয়ে ।রাসবেরী পাই আপনাকে এই সুবিধা দিতেই সক্ষম সবচেয়ে কম মুল্যে।অবিশাস্য মনে হচ্ছে কথাগুলো………

মনে হচ্ছে রাসবেরী!!এটা তো একটা ফলের নাম।

চিত্রঃরাসবেরী পাই

অবিশাস্য মনে হলেও এটির মাধ্যমে আপনি কোডিং ,ছোটখাটো প্রজেক্ট,রোবোট তৈরি ,প্রোগ্রামিং করার মত উচ্চতর সুবিধাবিশিষ্ট এ কম্পিউটারটি ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য তৈরী করা হয়েছে।এছাড়াও আপনি একে হোম থিয়েটার পিসি,লো পাওয়ার ডেস্কটপ কম্পিউটার এবং ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে কম্পিউটিং এর কাজে ব্যবহার করতে পারেন।এর সবচেয়ে অসাধারন ব্যাপার হচ্ছে দামের তুলনায় এর সক্ষমতা অনেক বেশি আকর্ষনীয়।

 

চিত্রঃরাসবেরী পাই

আপনি হয়তো উপরের চিত্রেই দেখতে পাচ্ছেন কত ছোট একটি কম্পিউটার এটি।কিন্তু ভাবছেন এটা দেখতে এমন কেন!!মনে হয় যেন কিছু ইলেকট্রনিক্স কম্পোনেট সার্কিটবোর্ডে জুড়ে দিয়ে সার্কিটবোর্ডটাকে নাম দিয়েছে কম্পিউটার।আসলে এটা ম্যানুফ্রাকচার কম্পানীই যান্ত্রিক এবং কম্পিউতিং ভাব আনার জন্য এমন নগ্ন অবস্থায় রেখেছে।তবে আপনার যদি মনে হয় আপনি একে এমনভাবে দেখতে চাননা তাহলে অবশ্যই একে জামা-কাপড় পরিয়ে সুন্দর একটা রুপ দিতে পারেন।তাছাড়া আকর্ষনীয়তার চেয়ে একে কাজেকর্মে বেশি পটু করা হয়েছে।এটা অনেকটা যেন গায়ের লক্ষী বধূর মত কর্মে পটূ রুপে কালো ধরনের।

কেন আপনি রাসবেরী পাই কিনতে পারেনঃ

আগেই আপনাকে আমি বলেছি এটার সাইজের কথা আর কাজের কথাও অলরেডি অনেক কিছু বলা হয়েছে।তবুও আরো কিছু বিস্তারিত বলা যাক,

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা প্রোগ্রামিং করতে ভালবাসেন ।আবার প্রোগ্রামীং করার জন্য ২০-৩০ হাজার টাকা খরচ করার মানে দেখেন না আবার ডেস্কটপ কম্পিউটার বিল্ড করা বা ল্যাপটপ নেয়াও অনেকটা ব্যয় বহুল।আবার ধরুন আপনি একটা ছোট খাট রোবট তৈরি করলেন কিন্তু রোবট তৈরি করার পর যখন এটিকে একটি কম্পিউতারের সাহে যুক্ত করার কথা আসছে তখন তো ঝামেলাই বটে।এ কাজটাই যদি একটা ছোট্ট কম্পিউটারের মাধ্যমে করা যায় তাহলে দারুন হয়না!!!

আর আপনি যদি হন শুধুই বেসিক কম্পিউটার ইউজার অর্থাৎ ইমেইল চেকিং ,ইন্টারনেট ব্রাউজিং আর ওয়ার্ড প্রসেসিং সফটওয়্যার ব্যবহার করাই হয়ে থাকে আপনার লক্ষ্য তবে রাসবেরী পাই আপনার জন্য হতে পারে যুগোপযোগী একটি উন্নতমানে কম্পিউটার।হ্যা যদিও এটি খুবই উন্নত মানের নয় কিন্তু আপনার কাজের জন্য জাস্ট পারফেক্ট।তাছাড়া অতি ক্ষুদ্র ল্যাপটপ হওয়ার দরুন এটি আপনি কেবল পকেটে নিয়েই ঘুরতে পারছেন।অনেক তো কথা হলো রাসবেরি পাইয়ের গুনাগুন নিয়ে এবার আসুন এর কনফিগারেশন সমপর্কে জেনে নেইঃ

কনফিগারেশন

আগেই আমই বলেছি এটা একটা পূর্নাঙ্গ কম্পিউটার ।তাই একটা কম্পিউটার হতে যা যা লাগে সবকিছুই এর আছে কিন্তু সাধারন কম্পিউটারের মত এর কনফিগারেশন অতটা পাওয়ারফুল নয়।বর্তমানে লেটেস্ট রাসবেরী পাই বাজারে যেটা এসেছে সেটা হলো Rasberry Pi 3 ।এর কনফিগারেশন সম্পর্কে আলোচনা করা হলোঃ

একটি ১.২ গিগাহার্জ ক্ষমতা সম্পন্ন ৬৪-বিট কোয়াড কোর এআরএমভি৮ প্রসেসর

৮০২.১১ এন ওয়্যারলেস (ওয়াইফাই) লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক

১ জিবি র‍্যাম

৪টি ইউএসবি পোর্ট

৪০টি জিপিআইও পিন

ফুল এইচডিএমআই পোর্ট

ইন্টারনেট পোর্ট

একটি অডিও ইনপুট এবং আউটপুট করার জন্য ৩.৫ মিমি. জ্যাক

ক্যামেরা ইন্টারফেস

ডিসপ্লে ইন্টারফেস

মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট

৩ডি গ্রাফিক্স কোর

লিনাক্স নির্ভর রাসবেরী পাই নামের এই কম্পিউটারটি আপনি ব্যবহার করতে পারবেন লিলাক্সনির্ভর অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম যেমন-উবুন্টু ,স্নেপি উবুন্টু ,ডেবিয়ান ইত্যাদি ব্যবহার করা যাবে।তাছাড়া মিডিয়া প্লে করার জন্য লিনাক্স নির্ভর ওপেন সোর্স মিডিয়া সেন্টার ডাউনলোড করে নিতে পারেন।লিনাক্স ছাড়াও এতে উইন্ডোজ টেন ব্যবহার করা যাবে তাছাড়া আরো কিছু অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করার সুবিধা রয়েছে।ব্যবহার করা যাবে তাছাড়া আরো কিছু অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করার সুবিধা রয়েছে।

যদিও এর কনফিগারেশঅন দেখে আপনার মনে হবে এটা তো সাধারন এন্ড্রোয়েড ফোনের চেয়েও কম কনফিগারেশন কিন্তু কম্পিউটারের বেসিক সেবা প্রদান করার জন্য রাসবেরী পাই দারুন একটা যন্ত্র।

রাসবেরি পাই এর সাথেও যেকোনো ডিসপ্লে বা মনিটর কানেক্ট করা যাবে এইচডিএমআই কানেক্টর দ্বারা এবং আপনি চাইলে একটি ক্যামেরা মডিউল কিনে এর সাথে লাগিয়ে ব্যবহার করতে পারেন যদি মনে করেন আপনার একটি ক্যামেরার প্রয়োজন রয়েছে। তাছাড়া যদি চান এটিকে দেখতে অনেকটা ট্যাব এর মত দেখাতে তবে কিনে নিতে পারেন টাচ স্ক্রিন ।এতে পোর্টেবিলিটিও পাবে বৃদ্ধি। কিন্তু এর ইন্টারনাল স্টোরেজ অনেক কম তাই মাইক্রো এসডি লাগিয়ে এর স্টোরেজ এক্সপ্যান্ড করতে হবে। সাথে পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডড্রাইভ লাগানোর সুবিধা তো থাকছেই। এই কম্পিউটারটির ভেতরে ডিফল্ট কোন পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট নেই তাই অনেকটা মোবাইল চার্জারের মতো দেখতে পাওয়ার সাপ্লাই দ্বারা এতে পাওয়া দেওয়া হয়। এই কম্পিউটারটি ঠিকঠাক মতো কাজ করার জন্য ২ অ্যাম্পিয়ার কারেন্টের প্রয়োজন হয়।

৪টি ইউএসবি পোর্ট সম্বলিত এই রাসবেরী পাই এ কানেক্ট করা যাবে মাউ্‌স , কীবোর্ড,এক্সটার্নাল হার্ড্ড্রাইভ এসব। এর আরেকটি আকর্ষণীয় ফিচার হলো জিপিআইও (জেনারাল পারপাস ইনপুট/আউটপুট) পিন। এই পিন গুলোর মাধ্যমে যেকোনো প্রোজেক্টের সাথে এই মিনি কম্পিউটারটিকে কানেক্ট করা যাবে এবং এই পিন গুলোকে ব্যবহার করে ইচ্ছা মতো প্রোগ্রামিং করা যেতে পারে। ।

পরিশেষে

ইন্টারনেট অব থিংস এর সময়কালে রাসবেরী পাই বিশেষ করে প্রোগ্রামারদের জন্য দারুন একটি কম্পিউটার হবার ক্ষমতা রাখে।বাংলাদেশী টাকায় ছয় থেকে সাড়ে ছয় হাজার টাকার মধ্যে আপনি এই কম্পিউটারের একটি ফুল সেট আপ পেতে পারেন।

 

You may also like...